পাঁচ গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্যতথ্য বিষয়ে সত্য-মিথ্যা জেনে নিন - Rajbari News | রাজবাড়ী নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Breaking

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Wednesday, January 2, 2019

পাঁচ গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্যতথ্য বিষয়ে সত্য-মিথ্যা জেনে নিন


বেশ কিছু স্বাস্থ্যতথ্য রয়েছে, যা আপনার চিকিৎসকের কাছ থেকেও সঠিকভাবে জানা সম্ভব নাও হতে পারে। এর কারণ আধুনিক বিজ্ঞান এত দ্রুত অগ্রসর হচ্ছে যে, বহু তথ্যই অনেকের কাছে থাকে না। এসব বিষয়ে তাই বিশেষজ্ঞদের সহায়তা নিয়ে হয়। এ লেখায় রয়েছে তেমন কিছু বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের মতামত। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।
১. ‘মেরুদণ্ডে ব্যথা সারাতে বিশ্রাম কার্যকর’ : মিথ্যা
এ মতামতের উৎপত্তি বেশ কিছুদিন আগে। সে সময় ধারণা ছিল আঘাতের কারণেই মেরুদণ্ডে ব্যথা হয়। আর এ সমস্যা সমাধানে বিশ্রামই সবচেয়ে কার্যকর। তবে পরবর্তীতে এ ধারণা পাল্টেছে।
২০০৭ সালে আমেরিকান কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস-এর এক গবেষণায় জানা যায় মেরুদণ্ডের ব্যথা ‘বেড রেস্টে’র কারণে আরো বেড়ে যায়। এতে এ ব্যথা দীর্ঘস্থায়ী হয়। তার বদলে নড়াচড়া অব্যাহত রাখলে এ ব্যথা নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব বলে মনে করেন অনেক বিশেষজ্ঞ। আর ব্যথা যদি দীর্ঘস্থায়ী হয় তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
২. ‘হরমোন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপিতে ক্যান্সার হয়’ : মিথ্যা
অনেকেরই ধারণা হরমোন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি অত্যন্ত বিপজ্জনক এবং এতে ক্যান্সার হয়। এক্ষেত্রে সন্দেহের তালিকায় রয়েছে স্তন ক্যান্সার। যদিও স্তন ক্যান্সারের বিষয়টি হরমোন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপির কারণে হয় সে বিষয়ে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বহু গবেষণাতেই এস্ট্রোজেন নামে হরমোনটি নিরাপদ হিসেবে দেখা গেছে। আর এ কারণেই হরমোন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপির কারণে ক্যান্সার হয়, এমন কোনো বিষয়ের ভিত্তি নেই।
৩. মায়ের বংশে স্তন ক্যান্সার থাকলে মেয়েরও হতে পারে : মিথ্যা
১৯৯০ দশকে স্তন ক্যান্সার বিষয়ে ভুল ধারণা প্রচলিত ছিল। সে সময় ভুল তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে ধারণা করা হয়েছিল, কোনো নারীর প্রথম রক্ত সম্পর্কের (মা বা বোন) নারী আত্মীয় যদি স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয় তাহলে তারও হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যদিও পরবর্তীতে গবেষণায় এ বিষয়টির সত্যতা পাওয়া যায়নি। জানা গেছে, মা কিংবা বাবা যে কোনো বংশেই স্তন ক্যান্সার থাকলে তা হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায়।
৪. অল্পবয়সী মেয়েদের স্ট্রোকের ঝুঁকি নেই : মিথ্যা
অনেকেরই ধারণা অনেক বয়স হলে তবেই স্ট্রোকের সম্ভাবনা তৈরি হয়। যদিও ৪৫ বছর বয়সের আগেও স্ট্রোকের ঝুঁকি রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিনস ইউনিভার্সিটির স্কুল অব মেডিসিনের সাম্প্রতিক এক গবেষণাতেও এমন তথ্য পাওয়া গেছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ৪৫ বছর বয়সের নিচে অনেক রোগীই স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। এক্ষেত্রে তাদের ভুল চিকিৎসা হওয়ার সম্ভাবনা সাত গুণ বেশি থাকে। কারণ এ বয়সে স্ট্রোক আক্রান্ত হয়েছে, এমনটা অনেকেই বিশ্বাস করে না। সাম্প্রতিক পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, অল্পবয়সী নারীদের স্ট্রোকের ঝুঁকি দিন দিন বাড়ছে।
৫. ‘বেশি করে পানি পান করলে ত্বক পরিষ্কার হবে’ : মিশ্র
একথা সত্য যে, ত্বকের জন্য পানি উপকারি। কিন্তু শুধু পানি পানেই ত্বক ভালো হবে না। এক্ষেত্রে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার বড় ভূমিকা রয়েছে। ত্বক থেকে দূর করতে হবে মরা ত্বক ও দূষণকারী পদার্থ।

Post Top Ad

Responsive Ads Here